More

    প্রেম করার অপরাধে মেয়েটিকে কুপিয়ে মেরেই ফেললেন মা-ভাই!

    অবশ্যই পরুন

    পটুয়াখালীতে ১৫ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাতের রেকর্ড

    উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় সৃষ্ট লঘুচাপের কারণে পটুয়াখালী সংলগ্ন বঙ্গোপসাগর বেশ উত্তাল রয়েছে। বাতাসের চাপ আগের চেয়ে কিছুটা...

    স্বাস্থ্যবিধি না মানায় কলাপাড়ায় ৩৪ জনকে অর্থদন্ড

    পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় লকডাউন অমান্য করায় এবং স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ৩৪ জনকে অর্থদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বুধবার বেলা সাড়ে ১১...

    বরিশালে অতিভারি বৃষ্টির আভাস: সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্কতা

    বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপটি আরও শক্তি সঞ্চয় করে সুস্পষ্ট লঘুচাপে পরিণত হয়েছে। এটি বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের (খুলনা, সাতক্ষীরা ও যশোর) স্থলভাগে...

    ব্রিজ না করেই লাখ টাকা লোপাট: সাঁকোর ছবি ভাইরাল

    উদয়কাঠি ইউনিয়নের বাসিন্দা, বরিশাল জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান এবং বানারীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাওলাদ হোসেন সানা...

    প্রেম করার অপরাধে গাইবান্ধার সাঘাটার দক্ষিণ উল্লা গ্রামে কলেজছাত্রী আতিকা সুলতানাকে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ।

    এ ঘটনায় ছাত্রীর বাবা কলেজ শিক্ষক আমিনুল ইসলাম ক্বারী বাদী হয়ে তার স্ত্রী হামিদা ও বড় ছেলে তানজিনকে আসামি করে সাঘাটা থানায় হত্যা মামলা করেছেন।

    সাঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বেলাল হোসেন জানান, আতিকার মা হামিদাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার ভাই তানজিন পলাতক। নিহত আতিকার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

    এর আগে শুক্রবার বিকেলে গাইবান্ধার সাঘাটার দক্ষিণ উল্লা গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে আতিকা সুলতানার গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় রক্তাক্ত কম্বল, ছুরি জব্দ করে জিঙ্গাসাবাদের জন্য নিহত কলেজছাত্রীর মা হামিদা আক্তারকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

    দক্ষিণ উল্যা গ্রামের আতিকা সুলতানা উদয়ন মহিলা কলেজের এইচএসসিতে অধ্যয়নরত। তার বাবা আলহাজ আমিনুল ইসলাম ক্বারী একটি কলেজের শিক্ষক।

    ইউপি সদস্য জলিল জানান, শুক্রবার বিকেল সাড়ে চারটার দিকে মোবাইলে খবর পেয়ে ওই বাড়িতে যান তিনি। সেখানে গিয়ে ওই বাড়ির গেট লাগানো দেখতে পান। ঘরে আতিকার মা কান্না করছিল। ডাকাডাকির পর গেট খুলে দিলে আতিকার মায়ের সারা শরীরে রক্ত দেখতে পান। কি হয়েছে জানতে চাইলে তিনি ঘরে ঢুকে দরজা লাগিয়ে দেন। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ওই বাড়িতে গিয়ে আতিকার গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে। বাড়ি থেকে রক্তাক্ত ছুরি, কম্বল জব্দ করে। অন্যদিকে আতিকার বড় ভাই তানজিনের ব্যবহৃত রক্তাক্ত পোশাক বাথরুমে পাওয়া গেলেও তাকে পাওয়া যায়নি। পরে আতিকার মাকে আটক করে পুলিশ।

    সাঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বেলাল হোসেন বলেন, শুক্রবার রাতেই থানায় মামলা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে প্রেম করার অপরাধে মা ও ভাই তাকে হত্যা করেছে। তদন্তে বিস্তারিত বেরিয়ে আসবে।

    সম্পর্কিত সংবাদ

    সর্বশেষ সংবাদ

    পটুয়াখালীতে ১৫ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাতের রেকর্ড

    উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় সৃষ্ট লঘুচাপের কারণে পটুয়াখালী সংলগ্ন বঙ্গোপসাগর বেশ উত্তাল রয়েছে। বাতাসের চাপ আগের চেয়ে কিছুটা...